ব্রেকিং নিউজ

সরিষাবাড়ীতে মেয়র রুকনের সাথে কাউন্সিলরদের ধস্তাধস্তি, আহত ১

ইসমাইল হোসেন, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পৌর মেয়র রোকনুজ্জামান রোকন এর সাথে ধস্তাধস্তি করলেন পৌর পর্ষদের কাউন্সিলরবৃন্দ। জানা যায়,গত ১০ মে সকাল ১১ টার দিকে পৌর মেয়র রোকনুজ্জামান রোকন তার অফিস কক্ষে বসার জন্য পৌরসভায় আসলে পৌর পর্ষদের কাউন্সিলরবৃন্দ তাকে পৌরসভায় বসতে দিবে না বলে বাঁধা সৃষ্টি করেন।

কিন্তু পৌর মেয়র রোকনুজ্জামান রোকন ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করলে পৌর কাউন্সিলর কালা চাঁন পাল তাকে ধাক্কিয়ে সরিয়ে দেন। এই নিয়ে মেয়র ও কাউন্সিলরদের মধ্যে বাকদ্বন্দ্ব সহ ধস্তাধস্তি শুরু হয়। কাউন্সিলরবৃন্দ অভিযোগ করে বলেন আমরা সকলেই তার বিরুদ্ধে সাংবাদিক সম্মেলনের মধ্যদিয়ে অনাস্থা প্রস্তাব ঘোষণা করেছি।

সে একজন স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব্যবহারকারী। সে নিয়োগ-বাণিজ্য, ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতি ও অনিয়ম, আর্থিক দুর্নীতি সহ নারী কেলেঙ্কারির সাথে সম্পৃক্ত। তার মত একজন অসৎ মানুষ পৌর মেয়র হিসেবে অযোগ্য বলে আমরা তাকে পৌরসভায় বসতে দিবো না। কিন্তু পৌর মেয়র রুকন বলছেন, সকল কাউন্সিলরবৃন্দ বয়স্ক ভাতা,বিধবা ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করতে আর্থিক দুর্নীতি করেছেন জনগণের সাথে। আজ তারা মিথ্যা অপবাদ দিয়ে, তাকে চাল চোর সাজিয়ে পৌরসভা থেকে তাড়িয়ে দিতে চান। কিন্তু তিনি তাদের এই মিথ্যা প্রহসন কখনোই বাস্তবায়িত হতে দিবেন না বলে উপস্থিত সকলকে জানান। এরি মধ্যে কাউন্সিলরদের সমর্থিত নেতাকর্মীরা এসে হামলা চালায় মেয়র রুকন ও তার দেহরক্ষী তন্ময়ের উপর।

এক পর্যায়ে পুলিশ প্রশাসন এসে পৌর কার্যালয় সম্মুখে উত্তপ্ত এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন বলে জানা যায়। এদিকে মেয়র রুকনের দেহরক্ষী তন্ময় আহত হওয়ায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার পাঠানো হয়েছে এবং তার খাদ্যগুদামের সম্মুখে মেইন রোড় সংলগ্ন ইতালিয়া পিয়াজা নামক ফ্যাশন হাউজটি ভাঙ্গচুর ও লুটপাট করা হয়েছে বলে জানা যায়। সরিষাবাড়ী পৌরসভার এমন অস্থিতিশীল পরিস্থিতি দেখে পৌরবাসী ও সুধী সমাজ ধারণা করছেন,পৌর পর্ষদের এই দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অঙ্গনেও সৃষ্টি হতে পারে অস্থিতিশীল পরিবেশ।