ব্রেকিং নিউজ

সরিষাবাড়ীতে ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে অশালীন আচরণ ও শিক্ষককে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ!

ইসমাইল হোসেন সরিষাবাড়ী(জামালপুর)প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা ইউনিয়নের বাশুরিয়া এলাকার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ শামসুন্নাহার উচ্চ বিদ্যালয় এর বর্ষিয়ান প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশিদ স্যারকে অকথ্য গালিগালাজ ও দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছেন পিংনা ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক। জানা গেছে, গত ৯ ডিসেম্বর সকাল ১০ ঘটিকার সময় অত্র বিদ্যালয়ের নব গঠিত ম্যানেজিং কমিটির প্রথম মিটিং অনুষ্ঠিত হবে বলে উক্ত মিটিং এ আমন্ত্রিত অতিথিদের চিঠির মাধ্যমে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়।

কিন্তু পিংনা ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি তার দলবল নিয়ে উপস্থিত হন সাড়ে ১২টার দিকে। তখন মিটিং এ আমন্ত্রিত ব্যক্তিবর্গ সভার কার্য দিবস শেষ করে চলে যাচ্ছিলেন বলে জানা যায়। এমন সময় সিদ্দিকুর রহমান বলেন,তাকে ছাড়া কেন মিটিং শেষ করা হয়েছে। তিনি মন্ত্রীর প্রতিনিধি। তাই তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে। সিদ্দিকুরের এমন অবান্তর উগ্রতাপূর্ণ অসভ্যতা দেখে উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ওয়াকার হাসান বাবন বলেন,১০টার মিটিং সাড়ে ১২টায় এলে তো হবে না। তোমার প্রতীক্ষায় থেকে অবশেষে উপস্থিতি মন্ডলী আজকের কার্যদিবস শেষ করেছে। এতে তো দোষের কিছু নেই।

বাবনের এমন কথার পরিপ্রেক্ষিতে সিদ্দিক গং উশৃংখলতা শুরু করে শিক্ষাঙ্গনে। তার অকথ্য গালিগালাজ ও অশালীন আচরণে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খুবই মর্মাহত ও আতঙ্কিত। এদিকে নতুন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম ও সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত বিদ্যুৎসাহী সদস্য ও পিংনা ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সেলিম আল মামুন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। এদিকে বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, এই

সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দীকের এমন অসভ্যতার কারণ হলো তিনি একজন ডাকাত জেল খাটা সাজাপ্রাপ্ত আসামি। তিনি পিংনা গরুর হাটের সভাপতিত্ব পেয়ে নেপথ্যে প্রায় কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। তার নামে নানান কুকর্ম সহ নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ রয়েছে। তিনি রাজনীতিকে পুঁজি করে নানান অপতৎপরতায় রয়েছেন বলে জানা গেছে। যার বাস্তবতা এই শিক্ষাঙ্গনে সিদ্দিক গং এর এমন অশালীন আচরণ ও অসভ্যতা। অত্র স্কুল কমিটির কর্তৃপক্ষ মনে করছেন এটি সিদ্দিকের উদ্দেশ্য প্রণীত কার্য। তা না হলে কেন তিনি অতিথি হয়ে এসে শিক্ষাঙ্গনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবেন ? এদিকে উক্ত বিষয়ে সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক এর কাছে জানতে চাইলে, তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রীর একান্ত কাছের লোক বলে দাবী ও দাম্ভিকতা দেখান।

Leave a Reply