ব্রেকিং নিউজ

সরিষাবাড়ীতে এক বখাটের ইভটিজিং ও অপহরণের হুমকি

ইসমাইল হোসেন সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে এক মেয়ে শিক্ষার্থীকে ইভটিজিং ও অপহরণের হুমকি দিয়েছে এক বখাটে সন্ত্রাসী। জানা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভার অধীনস্থ আরামনগর বাজার হাজীবাড়ি এলাকার মৃত রেহান আলীর একমাত্র বখাটে সন্ত্রাসী ছেলে ডিউক(২৫) একই এলাকার বসবাসরত বাড়ি পড়শী আলাউদ্দিন তরফদারের মেয়ে জান্নাতুল আফরিন এ্যানি(২০) এর বিনা অনুমতিতে ছবি তুলে ও ভিডিও ধারণ করে।

তাই এনি ছবি ও ভিডিও ধারণ করা নিষেধ করলে সন্ত্রাসী ডিউক এনি কে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং অপহরণের হুমকি দেয়। তখন এনির মা এলিজা আক্তার বখাটে ডিউক এর হাত থেকে মোবাইলটি কেড়ে নেয়। এমন সময় সন্ত্রাসী ডিউক মা ও মেয়েকে শ্লীলতাহানি করার জন্য হাত ধরে টানা হেচড়া করে। মা-মেয়ের চিৎকার-চেঁচামেচিতে বাড়ির পড়শীরা ছুটে এলে সন্ত্রাসী ডিউক চলে যায়। পরক্ষণেই ডিউক এর চাচাতো ভাই কামরুল হাসান এসে এ্যানির মার কাছ থেকে মোবাইলটি নিয়ে যায়। এ্যানির বাবা আলাউদ্দিন তরফদার বলেন, আমার মেয়ে এনি ঢাকা ইডেন কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। সে কলেজের হোস্টেলে থাকে।

আজ তিন দিন হলো মেয়েটি আমার বাড়িতে বেড়াতে এসেছে। কিন্তু আজ সকাল ১১ টার দিকে আমার স্ত্রী এলিজা আক্তার ও মেয়ে এনি বাড়ির গেটের সম্মুখে দাঁড়িয়ে কথা বলছিল। এমন সময় সন্ত্রাসী ও বখাটে ডিউক এসে আমার মেয়েকে উদ্দেশ্য করে আজেবাজে কথা বলে। যা কিনা ইভটিজিংয়ের শামিল বলে আমার স্ত্রী ও মেয়ে প্রতিবাদ করেন। যার কারণে মেয়েকে উঠিয়ে নিয়ে যাবে বলে হুমকি দিয়েছে ডিউক। ইতিপূর্বেও এই সন্ত্রাসী ডিউক আমার সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া ছেলে ইমরুল হাসান এরিককে অপহরণ করবে বলে হুমকি দিয়েছিল। যার কারণে আমি থানায় একটি অভিযোগ করেছিলাম।

আলাল তরফদার আরও বলেন, আমি এই এলাকায় বাসা করার পর থেকেই, এই সন্ত্রাসী ডিউক সর্বাত্মক আমার ক্ষতি করার অপতৎপরতায় রয়েছে। আমি ও আমার পরিবার পরিজনের জানমালের নিরাপত্তা চাই প্রশাসনের কাছে। কারণ সন্ত্রাসী ডিউকের হুমকিতে আমি ও আমার পরিবার আতঙ্কিত। এদিকে সন্ত্রাসী ও বখাটে ডিউক এর সম্পর্কে জানা যায়, সে ছোট থেকেই নানান কুকর্মের সাথে জড়িত। সে ২০০৪ সালে জামালপুর পতিতালয়ে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হয়েছিল বলে জানা গেছে এবং সাম্প্রতিক কিছুদিন পূর্বে ইয়াবাসহ পুলিশের কাছে গ্রেপ্তার হন এই ডিউক।

বিএনপি’র আদলে গড়া সন্ত্রাসী এই ডিউক নিজের খোলস পাল্টিয়ে বর্তমানে আওয়ামী লীগের পরিচয় দিয়ে চলেন বলে জানা গেছে। উপরোক্ত বিষয়টি সম্পর্কে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাজেদুর রহমান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply