ব্রেকিং নিউজ

বউয়ের কথায় মায়ের ভরণ-পোষণ বন্ধ করল প্রবাসী!

ডেস্ক রিপোর্ট : ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের বৈদ্য বাড়িতে সম্পত্তির লোভে বউয়ের কথায় মায়ের ভরন পোষণ বন্ধ করে দিয়েছে এক পাষন্ড সন্তান।

পাশাপাশি আপন তিন ভাইকে মামলায় জড়িয়ে তাদের বিদেশ গমনের পথ আটকে দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে। সোমবার বিকেলে সরেজমিনে গেলে ভুক্তভোগী জোবেদা খাতুন জানান, স্বামী হারা মৃত মোস্তফার ৬ শতাংশ জায়গায় ঘর তৈরী করেন কুয়েত প্রবাসী তার মেজ ছেলে আবুল কালাম।

সেখানে প্রবাসী ৪ ভাইয়ের জন্য ৮টি কক্ষ তৈরী করা হলেও বড় ছেলে সফিকুর রহমান ও তার স্ত্রী রাবেয়া খাতুন তাদের সেই ঘরে থাকতে দিচ্ছেনা। বরং ভরণ-পোষণ বন্ধ করে দেয়াসহ বিভিন্ন সময় তার উপর নি’র্যাতন চালিয়ে আসছে।

তিনি আরো জানান, একপর্যায়ে প্রবাসী তার বাকী তিন ছেলে খবর পেয়ে বিদেশ থেকে বাড়ি ফিরলেও তাদের নানা রকম হুমকিসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে বড় ভাই সফিকুর রহমান ক্ষি’প্ত হয়ে তার স্ত্রীকে দিয়ে উল্টো আদালতে মামলা করে তাদের বিদেশ গমণ বন্ধ করে দেয়।

ভুক্তভোগীর মেজ ছেলে আবুল কালাম ও ছোট ছেলে সাইফুল জানান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ থানায় একাধিক অভিযোগ দেয়া হয় এবং শালিশি বৈঠকে ৪ ভাইয়ের জন্য ৮টি কক্ষ বরাদ্ধের কথা মিমাংসা হলেও সে সব মানছেনা বড় ভাইসহ তার স্ত্রী।

উল্টো বহিরাগতসহ জনপ্রতিনিধিদের যোগসাজশে তাদের হয়রানী করছেন। এ ব্যাপারে জানতে বড় ছেলের স্ত্রী রাবেয়া খাতুনকে বাড়িতে পাওয়া না গেলেও তার মা নুরজাহান বিয়াধন জানান, তার মেয়ের জামাই বিদেশে রয়েছেন।

তাই মেয়েকে দেখাশুনা করতে তিনি জামাইের বাড়িতে অবস্থান করছেন। তিনি তার মেয়ের জামাতার বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ অস্বীকার করেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য পলাশ জানান, ঘটনাটি নিস্পত্তির চেষ্টা করেছেন। তবে তারা কেউ কাউকে ছাড় দিতে চাচ্ছে না।

ফেনী মডেল থানার এসআই মোহাম্মদ দুলাল জানান, তিনি সরজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বিষয়টি থানায় মিমাংসা হলেও বড় ছেলে সফিকুর রহমান ও তার স্ত্রী রাবেয়া খাতুন তা মানছেনা। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি আরো ক্ষতিয়ে দেখে দ্রুত আইননুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply