ব্রেকিং নিউজ
- ফাইল ফটো।

অবশেষে ব্যাট হাতে ফিরছেন রাইডু

ক্রীড়া ডেস্ক :

সিদ্ধান্ত পাল্টে ফের ব্যাট হাতে বাইশ গজে ফিরতে চলেছেন আম্বাতি রায়ডু। বিশ্বকাপের দলে সুযোগ না পেয়ে হতাশ ভারতের এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান বিশ্বকাপের মাঝেই সব রকম ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ের কথা ঘোষণা করেছিলেন। দু’মাস ঘুরতে না ঘুরতেই সিদ্ধান্ত বদল। ঘরোয়া ক্রিকেটে হায়দ্রাবাদের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করে সম্প্রতি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন ৩৩ বছরের এ ক্রিকেটার।

জানা গেছে, হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনকে পাঠানো এক মেইলে রায়ডু জানান, আবেগের তাড়নায় তিনি অবসরের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন। তবে পুনরায় তিনি ক্রিকেটের সকল ফরম্যাটেই ফিরতে চান।

রায়ডুর ইচ্ছেকে সম্মতি জানিয়ে হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনও ইতিবাচক সংকেত প্রদান করে। মেইলের পরিপ্রেক্ষিতে রায়ডুকে স্বাগত জানিয়ে তারা বলে, আসন্ন রঞ্জি মৌশুমের জন্য স্কোয়াডে রায়ডুর উপস্থিতি গুরুত্বপূর্ণ।

এক এইচসিএ কর্মকর্তার কথায়, রায়ডুর এখন পাঁচ বছর চুটিয়ে ক্রিকেট খেলতে পারে। একইসঙ্গে তরুণ ক্রিকেটারদেরও উদ্বুদ্ধ করবে সে।

জাতীয় দলে তার কামব্যাকের ইচ্ছের বিষয়টি গত সপ্তাহে পরিষ্কার করে দিয়েছিলেন রায়ডু নিজেই। এক প্রশ্নের উত্তরে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান জানিয়েছিলেন, জাতীয় দলে কে না খেলতে চায়?

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলে সুযোগ না পেয়ে নির্বাচকদের কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়ে শিরোনামে এসেছিলেন দেশের জার্সি গায়ে ৫৫টি ওয়ানডে ও ৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা এ ক্রিকেটার। এরপর স্ট্যান্ডবাই ক্রিকেটার হিসেবে তাকে রাখা হলেও প্রথমে শিখর ধাওয়ান ও পরে আহত বিজয় শংকরের পরিবর্তে যথাক্রমে রিশভ পান্ত ও মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হলেও ডাক পড়েনি রায়ডুর। স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বকাপের মাঝপথেই বোর্ডের উপর ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে হতাশায় ক্রিকেটের সকল ফরম্যাট থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন আম্বাতি।

২০১৮ সালের নভেম্বরে রঞ্জি ট্রফির প্রথম ম্যাচ থেকে বাদ পড়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন এই ব্যাটসম্যান। হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনকে লেখা চিঠিতে রায়ডু জানান, আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে মনোনিবেশ করতে চান তিনি।

Leave a Reply