ব্রেকিং নিউজ
- ফাইল ফটো।

অবসরে গেলেন অজন্তা মেন্ডিস!

:: ক্রীড়া ডেস্ক ::

ক্রিকেটের সব ধরনের ফরম্যাট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার রহস্যময় স্পিনার অজান্তা মেন্ডিস। ২০১৫ সালে ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দেশের হয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচে অংশ নেন ভিডিও বিশ্লেষণ যুগের প্রথম রহস্য স্পিনার অজন্তা মেন্ডিস।

২০০৮ সালের এপ্রিলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় মেন্ডিসের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেই ওয়ানডেতে ৩৯ রানে নেন ৩ উইকেট। এরপর এশিয়া কাপে দারুণ বোলিংয়ে নজর কাড়েন এই স্পিনার। করাচিতে ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ১৩ রানে নেন ৬ উইকেট।
ওয়ানডেতে দ্রুততম ৫০ উইকেটের রেকর্ড এখনও মেন্ডিসের অধিকারে। ১৯ ম্যাচে ৫০ উইকেট নিয়েছিলেন লঙ্কান এই স্পিনার।

৩৪ বছর বয়সী এই তারকা জাতীয় দলের হয়ে ১৯ টেস্টে ৭০ উইকেট, ৮৭ ওয়ানডেতে ১৫২ আর ৩৯ টি-টোয়েন্টিতে ৬৬ উইকেট নিয়ে ক্যারিয়ার শেষ করলেন।

২০০৮ সালের জুলাইয়েই ডাক মেলে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট দলে। তিন ম্যাচের সিরিজে দলকে ২-১ ব্যবধানে জেতাতে ২৬ উইকেট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। বল স্কিড করাতে পারতেন মেন্ডিস, পারতেন দুই দিকেই স্পিন করাতে। টি-টোয়েন্টিতে হয়ে উঠেছিলেন ভয়ঙ্কর।

২০১২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৮ রানে নেন ৬ উইকেট। ২০০৯ ও ২০১২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কাকে ফাইনালে তুলতে রাখেন বড় অবদান। একমাত্র বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে দুইবার নেন ৬ উইকেট। ২০১১ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন ১৬ রানে।

পরে ব্যাটসম্যানরা তার কৌশল ধরে ফেলায় অবনতি ঘটে পারফরম্যান্সে। চোটের জন্য ফেরার পথ হয়ে যায় আরও কঠিন। ঘুরে দাঁড়িয়ে ২০১১ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত নিয়মিতই সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দেশের হয়ে খেলেন মেন্ডিস।

চোটের কারণে ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ দলের জন্য বিবেচনা করা হয়নি তাকে। এরপর ফিরলেও টিকে থাকতে পারেননি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে।

Leave a Reply