ব্রেকিং নিউজ
- ফাইল ফটো।

অধিনায়ক সাকিবদের সামনে চ্যালেঞ্জ

:: ক্রীড়া ডেস্ক ::

বাংলাদেশ দল সবশেষ টেস্ট খেলেছে মার্চে। নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে। ওই ম্যাচে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে টাইগাররা। পাঁচ মাস পর আবারও সাদা জার্সিতে মাঠে নামতে দেখা যাবে সাকিব, মুশফিকদের। প্রথমবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। টেস্টে বাংলাদেশ দল এখনো পরিপক্ব নয়! ওয়ানডেতে কিছু সাফল্য মিললেও লংগার ভার্সনে তারা নিজেদের প্রমাণ করতে পারেনি। সাদা জার্সিতে বাংলাদেশের বড় সাফল্য ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো ক্রিকেট পরাশক্তি দলের বিপক্ষে পাওয়া একটি করে জয়। এ ছাড়া ভারত, নিউজিল্যান্ড কিংবা পাকিস্তানের মতো দলকে কখনই হারাতে পারেনি টাইগাররা।

আফগানিস্তানকে নিয়ে অতশত ভাবার কিছু কি আছে? গত বছর ক্রিকেটের কুলীন সমাজে প্রবেশ করেছে যুদ্ধবিধ্বস্ত এই দেশটি। এখন পর্যন্ত তারা মাত্র দুটি টেস্ট খেলেছে। ভারত ও আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে খেলা ওই দুই ম্যাচেই পরাজয়ের তেতো স্বাদ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে আসগর আফগানদের।

তবে টেস্টে নবীন দল হলেও আফগানিস্তানকে খাটো করে দেখার সুযোগ নেই। আফগানিস্তানের হারানোর কিছু নেই। কিন্তু বাংলাদেশের আছে। আফগানদের কাছে হারলে যে টাইগারদের মান থাকবে না! আইসিসি টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে নয়ে থাকা বাংলাদেশের সামনে তাই চ্যালেঞ্জ থাকছে। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে চট্টগ্রামে শুরু হতে যাওয়া টেস্টে সাকিবদের সামনে জয়ের বিকল্প নেই।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ও ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ সামনে রেখে কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু করেছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের পর শ্রীলংকা সফরেও হতাশ করেছে টাইগাররা। টেস্ট ও ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার মিশন সাকবিদের। সম্প্রতি মেহেদী হাসান মিরাজ জানিয়েছেন, আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে বাংলাদেশ ফেভারিট।

এই অলরাউন্ডার বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করব ভালো ক্রিকেট খেলার এবং আমরা যে ওদের থেকে ভালো ক্রিকেট খেলি এটা প্রমাণ করার চেষ্টা করব। বিগত কয়েক বছর যে ক্রিকেট খেলেছি সেভাবেই আমরা চেষ্টা করছি, আর ওভাবেই কঠোর পরিশ্রম করছি।’ বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জানান, আফগানিস্তান যেভাবে উন্নতি করেছে তাতে তাদের বিপক্ষে যে কোনো ফরম্যাটে খেলা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জই।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে মাঠে নামার আগে অতীতের খারাপ একটা স্মৃতিও হয়তো তাড়া করে ফিরবে টাইগারদের। গত বছর আফগানিস্তানের কাছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার লজ্জা পেতে হয়েছিল সাকিব-তামিমদের। যদিও অতীত ভুলে সামনে চোখ বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের। কন্ডিশনিং ক্যাম্পের প্রাথমিক দলে থাকা খেলোয়াড়রা মনে করছেন, দেশের মাটিতে খেলা হওয়ায় শুধু টেস্ট না ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজও জিতবে বাংলাদেশ!

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবার টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। প্রথম সাক্ষাতেই জয় তুলে নিতে চাইবে টাইগাররা। তবে লংগার ভার্সনে বাংলাদেশের অতীত পরিসংখ্যান খুব একটা সমৃদ্ধ নয়। এখন পর্যন্ত ভিন্ন ভিন্ন দলের বিপক্ষে মোট ১১৪টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে তারা। তাতে জয়ের স্বাদ পেয়েছে মাত্র ১৩টি।

Leave a Reply