ব্রেকিং নিউজ

সরিষাবাড়িতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চাচাকে হত্যার চেষ্টা ভাতিজার

ইসমাইল হোসেন, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি ঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌর সভার ৮নং ওয়ার্ডের বাউসী পঞ্চবীর মধ্য পাড়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছোট ছেলে সাইদুর রহমান লেবুকে পর্ব শত্রুতার জের ধরে হত্যার চেষ্টা করেছে ভাতিজা শাকিল।

আহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার আনুমানিক সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে লেবু মাথার চুল কাটানোর জন্য গাবতলি বাজারে যায় এবং চুল কাটিয়ে ফিরে আসে সোয়া ১ টার দিকে। বাড়ীতে এসে বাল্যবন্ধু সম্রাটের সাথে কিছুক্ষণ কথাবার্তা বলে এবং সম্রাট চলে যাওয়ার পর লেবু সাংসারিক কাজে করছিল বলে জানান।

ইতিমধ্যে বেলালের ছেলে শাকিল বাড়ীর ভিতর থেকে এসে লেবুকে জিজ্ঞেস করে তুই আমার বিরুদ্ধে কি সমালোচনা করলি। লেবু বারবার তাকে বুঝাতে চেষ্টা করলেও শাকিল উত্তেজিত হয়ে লেবুকে মারতে শুরু করে এবং এক পর্যায় শাকিলের বাবা বেলাল হোসেন, শাকিলের মা স্বপ্না খাতুন ও ছোট ভাই শাওন এসেও লেবুর উপর অতর্কিত ভাবে হামলা করে বলে জানান। লেবু মার খেয়ে ভয়ে দৌড়ে গিয়ে ফরিদের ঘরে আশ্রয় নিলেও সেখানে গিয়ে তারা লেবুকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এদিকে লেবুর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসে এবং মৃত্যুর হাত থেকে তাকে উদ্ধার করে। বর্তমানে লেবু সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসারত রয়েছেন বলে জানা যায়।

উক্ত বিষয়টি লেবুর পরিবার মিডিয়াকে জানালে মিডিয়ার লোকজন এলাকায় গিয়ে জানতে পারে ঘটনার সত্যতা। বেলালের আপন বড় ভাই ফরিদ বলেন, হতে পারে বেলাল আমার ছোটভাই। তবুও সত্য বলবো। বেলাল একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তার আচার আচরণ উগ্রপন্থীর মত।সে আপনজন তথা সমাজের সকল মানুষকেই আতঙ্কের মধ্যে রেখেছে। কেউ কিছু বলতে গেলেই তাকে হত্যার হুমকি দেয় বলে জানান। বেলাল এবং তার দুই ছেলের অপতৎপরতার রোষানলে এলাকাবাসী বিষণ সংশয়ে আছে বলে জানা গেছে।

অনেকেই প্রাণ নাশের ভয়ে বেলাল ও তার ছেলেদের বিরুদ্ধে স্বাক্ষী দিতে চান না। তবুও একজন ভয়ে সংশয়ে বলেন। বেলাল এবং তার পরিবার অন্যের জায়গা দিয়ে যাবে জিনিস ব্যবহার করবে কিন্তু তার কোন জিনিস অন্যে ব্যবহার করতে পারবেনা। বলতে গেলে মাথা ফাটানোর হুমকি দেন বলে জানান। লেবুর বৃদ্ধ মা বলেন, বেলাল ও তার ছেলেরা কিছুদিন পূর্বে আমাকে ও আমার বড়ছেলেকে মেরেছে। আজ আমার ছোট ছেলেকে হত্যার চেষ্টা করেছে। আমি এর উচিত বিচার চাই। এদিকে বেলালের মেঝভাই দুলাল বলেন, লেবু আমাদের চাচাতো ভাই। ওর সাথে আমাদের কোন শত্রুতা নেই। ও বেলালের অপকর্ম দেখে প্রতিবাদ করে বিধায় আজ বেলালের শত্রু।

তবে বেলাল আমার ভাই হলেও এই গ্রাম থেকে বেলাল ও তার পরিবারের অপসারণ চাই। কারণ আমরা শান্তিপ্রিয় মানুষ। সমাজে সকলের সাথে শান্তিতে বসবাস করতে চাই বলে জানান। উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মাজেদুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে, তিনি বলেন আমরা এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply