ব্রেকিং নিউজ

গুজবে কান দিবেন না মাইকিং করলেন সরিষাবাড়ি থানার ওসি

ইসমাইল হোসেন, সরিষাবাড়ি (জামালপুর) প্রতিনিধি ঃ বাংলাদেশের স্বপ্নের সেতু, পদ্মা সেতু। আর এই সেতু নির্মাণের জটিলতা সৃষ্টি করার জন্যই কিছুদিন যাবৎ সারা বাংলাদেশে একটি কুচক্রী মহল কল্লা কাটার নামে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে বলে জানা যায়।

ইতিমধ্যে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় ছেলেধরা তথা কল্লা কাটার সংবাদটি মিথ্যা গুজব বলে প্রকাশ করেছে। তবুও জনমনে আতঙ্কের রেশ কাটচ্ছে না। প্রতিদিনি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সন্দেহ ভাজন হিসেবে নিরপরাধ লোকগুলোকে গণপিটুনিতে হত্যা ও আহত করা হচ্ছে। যা কিনা ফৌজদারী আইনে অপরাধের সামিল। এদিকে পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশ কল্লা কাটার নামে দেশের যে কোন স্থানে কোন প্রকার অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিকারী তথা অপতৎপরতায় থাকা সকল ব্যক্তিবর্গকে আইনের আওতায় আনতে।

তাই প্রতিটি জেলায় উপজেলায় থানার অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে মাইকিং করে জানিয়ে দেয়া হচ্ছে। কল্লা কাটা একটি গুজব সংবাদ।এর কোন বৃত্তি নেই। আপনারা গুজবে কান দিবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। জামালপুরের সরিষাবাড়ি উপজেলায় গত কয়েক দিন আগে তারাকান্দি কান্দার পাড়া বাজারে জামে মসজিদের সম্মুখে রুবেল (৩২) নামে এক অজ্ঞাত যুবকে ছেলেধরার সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করা হয়।

কিন্তু পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে সে একজন মাদক সেবী ও মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তি। তাই হুজুকে সুযোগ না নিয়ে। লাথি কিলঘুষি দেয়ার পূর্বে মানবিক দিকটা চিন্তা করা উচিত। সেও একজন মানুষ। এমন উক্তিই উঠে আসে গুণী মহল থেকে। বিভিন্ন সূত্রে আরও জানা যায়, মানব পাচারকারী কোন একটি চক্র শিশুদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে পদ্মা সেতুর নাম করে। যাতে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয় বর্হিরবিশ্বে এবং দেশের রাজনীতি অঙ্গনে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠে আইনশৃঙ্খলার নিরাপত্তা নিয়ে। এই বিষয়ে একজন প্রবীণ রাজনীতিবিদ বলেন রাষ্ট্র হচ্ছে প্রতিটি মানুষের ছাঁয়া আর ছাঁয়া কখনো ত্যাগ করতে পারে না শরীরের মায়া। এক মৃত্যু ব্যতীত।

তাই পৃথিবীর কোন রাষ্ট্রেই স্থাপনা তৈরী করার জন্য মানুষের কল্লা দিতে হয় না। এটি একটি ভুল, ভ্রান্ত ধারনা। সরিষাবাড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মাজেদুর রহমান বলেন, বাবা-মায়েরা অবশ্যই সন্তানের প্রতি খেয়াল রাখবেন এবং যত্ন নিবেন। কিন্তু গুজবে কান দিবেন না। যারা গুজবে কান দিবে এবং গণপিটুনির সাথে সম্পক্ত থাকবেন। তাদেরকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে মামলা দেয়া হবে। যদি কল্লাকাটার ঘটনার সত্যতা না মেলে বলে জানান। তিনি আরও বলেন আমরা স্কুলে স্কুলে গিয়ে শিক্ষক তথা শিক্ষার্থীদের সর্তক করছি এবং এলাকাবাসীকে মাইকিং করে জানাছি সর্তক থাকার জন্য কল্লাকাটার অপপ্রচার থেকে বলে জানান।

Leave a Reply