ব্রেকিং নিউজ

দান-সদকা নিতে যেন আত্মসম্মান হারাতে না হয়

আমরা প্রায়ই দেখে থাকি ছোট্ট একটি প্যাকেট দান করতে মঞ্চের সবাই প্যাকেটটি ধরে ফটো সেশন করি। দানগ্রহিতাকে দীর্ঘসময় দাঁড়িয়ে থাকতে হয় প্যাকেটটি ধরে। এসব দান আল্লাহ কবুল করবেন কিনা সন্দেহ রয়েছে। মসজিদ মাদরাসায়ও দান করে বলতে শোনা যায় হজুর এতো টাকা দিলাম দোয়া করেন। আল্লাহ সব দেখেন। দান গোপনে করলেও তিনি দেখবেন বরং আল্লাহ খুশি থাকবেন এমন কি দান গ্রহিতারও আত্মসম্মান বজায় থাকবে।

হযরত আবু হুরায়রা (রা:) বর্ননা করেছেন, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলতেন, ‘যখন আল্লাহর ব্যতিত কোনো ছায়া থাকবে না, তখন আল্লাহ সাত শ্রেণির লোককে তাঁর আরশের ছায়া দান করবেন। তাদের মধ্যে একজন হলো যে ব্যক্তি এতো গোপনে সাদকাহ বা দান করে যে, ডান হাত যা দান করে, বাম হাত তা টের পায় না।(সহীহুল বুখারীঃ ৬২০; সহীহ মুসলিমঃ ২৪২৭; তিরমিযীঃ ২৩৯১)

হজরত বাহয ইবনে হাকিম হতে বর্ণিত তিনি তার পিতা ও দাদার সূত্রে বর্ণনা করেছেন যে, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, ‘গোপন দান বরকতময় আল্লাহ তাআলার ক্রোধ নিপতিত করে।’ (তাবরানি, তারগিব)

হযরত ওমর (রাঃ) এর কথা শোনা যায়, রাতের অন্ধকারে ছদ্ধবেশে প্রজাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের অবস্থা দেখতেন। রাতের আধারেই দুস্থদের সহযোগিতা করতেন।

আসছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। এসময় ফিতরা দিয়ে থাকি। অনেকে সম্পদের বাৎসরিক যাকাতটাও এইসময়ে দিয়ে থাকি। এই দানটা নিতে কারও যেন আত্মসম্মান হারাতে না হয়। লাইনে দাঁড়াতে না হয়। অপেক্ষা করতে না হয়। সম্ভব হলে গোপনে দান করে তাদের সম্মান রাখার সর্বাত্মক চেষ্টা করবো। এটা দুস্থদের হক। আল্লাহ আমাদেরকে সঠিক বুঝ দান করুন । আমিন।

রেজাউল করিম- একজন সংবাদকর্মী
–পরিচালক-ইমপ্রুভ শিক্ষা পরিবার–

Leave a Reply