ব্রেকিং নিউজ

মাশরাফিকে কটূক্তি: জুলিসহ ৬ চিকিৎসককে কারণ দর্শানোর নোটিশ

নিউজ ডেস্ক: ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কটূক্তি করায় নওগাঁ জেলা হাসপাতালের ইনডোর মেডিকেল অফিসার ডা. মৌমিতা জলিল জুলিসহ ৬ চিকিৎসককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

গত ৬ মে মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব শামীমা নাসরিন স্বাক্ষরিত নোটিশ মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে।

কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া চিকিৎসকরা হলেন- নওগাঁ জেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিলের কন্যা ডা. মৌমিতা জলিল জুলি, চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজের হেমাটো অনকোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. এ কে এম রেজাউল করিম, ঢাকা মেডিকেল কলেজের রেসপিরেটরি মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের নিউরোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক, ডা. পঞ্চানন দাশ, বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পেডিয়াট্রিকসের রেজিষ্ট্রার ডা. আইরিন আফরোজ ও মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডা. ফাহমিদী হাসান।

স্বাক্ষরিত শোকজ নোটিশে মাশরাফিকে নিয়ে তাদের ফেসবুক পোস্টের কিছু অংশ তুলে ধরে বলা হয়েছে-আপনার আচরণ একজন সরকারি কর্মকর্তার জন্য মানানসই নয় এবং অশোভনীয় আচরণ। এবং সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালার পরিপন্থী যা সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ এর ৩ (খ) মোতাবেক ‘অসদাচরণ’ হিসেবে গণ্য।

এতে আরও বলা হয়, ‘এক্ষণে, সেহেতু সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ এর ৩ (খ) মোতাবেক অসদাচরণের দায়ে অভিযুক্ত করে কেন উক্ত বিধিমালার অধীনে যথোপযুক্ত দণ্ড প্রদান করা হবে না তা এ নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হল।’

উল্লেখ্য, সম্প্রতি নড়াইল সদর হাসপাতালে হঠাৎ পরিদর্শনে গিয়েছিলেন সংসদ সদস্য মাশরাফি। সেখানে তিনি কর্তব্যরত ডাক্তারদের কর্মস্থলে অনুপস্থিত পেলে একজন ডাক্তারের সঙ্গে মোবাইল ফোনে অনুপস্থিতির কারণ জানতে চেয়ে কথা বলেন।

কথোপকথনের সে দৃশ্য পরবর্তীতে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে অনেকে যেমন মাশরাফিকে বাহবা দেন, ঠিক তেমনি কেউ কেউ বিশেষ করে ডাক্তার সমাজ মাশরাফির কথার ধরণ নিয়ে প্রশ্ন তুলে তার সমালোচনা করেন।

Leave a Reply